রাতভর নির্যাতনের পর গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা

প্রকাশিত: ৭:৪৭ পূর্বাহ্ণ, জানুয়ারি ২১, ২০২১

ডেস্ক ঝিনাইদহের শৈলকূপা উপজেলায় রাতভর নির্যাতনের পর এক গৃহবধূকে গলা কেটে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। বুধবার সকালে উপজেলার আওশিয়া গ্রামের জাকির হোসেন নামে এক ব্যক্তির বাড়িতে গলাকাটা অবস্থায় আশ্রয় নেন ওই গৃহবধূ।

সূত্র জানায়, জাকির ওই গৃহবধূকে গলায় রক্তাক্ত ওড়না পেঁচানো অবস্থায় দেখতে পান। ওই সময় তিনি কোনো কথা বলতে পারছিলেন না। পরে পুলিশকে জানালে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে শৈলকূপা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠায়। সেখানকার চিকিৎসক তাকে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন।

আহত নারীর পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, মাগুরা জেলার শ্রীপুর উপজেলার চন্ডিখালি গ্রামের শাহাদত হোসেনের ছেলে হুসাইনের সঙ্গে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে পরিচয় থেকে প্রেম হয় তার। বিভিন্ন সময়ে হুসাইন তাকে বাড়ি থেকে বেড়াতে নিয়ে যেত। মঙ্গলবার এশার আজানের সময় ওই নারীর দুলাভাই হরিহরা গ্রামের রাব্বুলের বাড়ি থেকে তাকে আউশিয়া গ্রামে নিয়ে যান হুসাইন। পরে সকালে তারা জানতে পারেন যে ওই নারীকে পুলিশ আহত অবস্থায় উদ্ধার করেছে। তার গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন ও কানের দুল পাওয়া যায়নি। হুসাইন আউশিয়া গ্রামের আব্দুল গফুরের জামাতা।

আহত নারীর দুলাভাই রাব্বুল অভিযোগ করেন, ওই নারীকে রাতভর নির্যাতনের পর হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে।

শৈলকূপা থানার ওসি (তদন্ত) মোহসিন হোসেন জানান, পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে এবং সেখান থেকে একটি রক্তমাখা চাকু উদ্ধার করা হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।


সম্পাদক

মোঃ আবুল হাসান মোবাইল নাম্বার 01860003666

বার্তাকক্ষ

মোবাইল নাম্বার 09638870180