ডেস্ক

হলদিয়া থেকেই ভোটপ্রচার শুরু মোদির, অনিশ্চিত মেট্রোর উদ্বোধন

প্রকাশিত: ৩:১১ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৩, ২০২১

একুশের লড়াইয়ের জন্য কোমর বাঁধতে শুরু করে দিয়েছে বিজেপি। সেই লড়াইয়ে তাঁদের রাজামশাই যদি হন দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি তবে সেনাপতি অবশ্যই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ ও বিজেপির সর্বভারতিয় সভাপতি জে পি নাড্ডা। মূলত এই দুই সেনাপতির রণকৌশলের ওপর ভর দিয়েই এবার বাংলায় বাজিমাত করতে চাইছে গেরুয়া ব্রিগেড। ইতিমধ্যেই এই দুই সেনাপতি দফায় দফায় বাংলায় এসে রাজ্যের নানাপ্রান্তে ভোটের হাওয়া তুলে দিচ্ছেন। তবে দলের তরফে অফিসিয়ালি ভোট প্রচারটা শুরু করতে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিই। তিনি আগামী ৭ তারিখে হলদিয়ায় বিজেপির এক জনসভায় যোগ দেবেন। সেই সভাকেই বিজেপির এ রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের প্রচার শুরুর মঞ্চ করে তোলা হচ্ছে। এই অবস্থায় কিছুটা হলেও অনিশ্চিত হয়ে গিয়েছে প্রধানমন্ত্রীর হাতে নোয়াপাড়া-দক্ষিণেশ্বর মেট্রো প্রকল্পের উদ্বোধনের বিষয়টি।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যে ৭ তারিখ রাজ্যে আসছেন সেটা আগেই চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছে। কথা হয়েছিল তিনি দিল্লি থেকে কলকাতায় এসে দমদম বিমানবন্দর থেকে সেনাবাহিনীর হেলিকপ্টারে হলদিয়ায় যাবেন। সেখানে ভারত পেট্রোলিয়ামের একটি অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন তিনি। এরপর কলকাতায় ফিরে দক্ষিণেশ্বরে গিয়ে মেট্রো প্রকল্পের উদ্বোধন ও দক্ষিণেশ্বর মন্দিরে পুজোর দেওয়ার কথা ছিল তাঁর। কিন্তু সেই সূচি কিছুটা হলেও অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। কেননা রবিবার হলদিয়ায় সড়ক ও পরিবহণমন্ত্রকেরও একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পারেন মোদি। সেই সঙ্গে রাজ্য বিজেপির পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ করা হয়েছিল সেদিন হলদিয়ায় দলের জনসভায় যোগ দিয়ে রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের দলীয় প্রচার আনুষ্ঠানিক ভাবে শুরু করে দিতে। সেই প্রস্তাবে সায় দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। আর তাতেই অনিশ্চিত হয়ে গিয়েছে নোয়াপাড়া-দক্ষিণেশ্বর মেট্রো প্রকল্পের উদ্বোধন। সম্ভবত হলদিয়া থেকেই রিমোট কন্ট্রোলের মাধ্যমে প্রকল্পের উদ্বোধন করতে পারেন মোদি। আর নাহলে রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনের পরেই উদ্বোধন হবে এই মেট্রো প্রকল্পের।

একই সঙ্গে জানা গিয়েছে কেন্দ্রীটয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ কলকাতা মেট্রো রেলের জন্য বড় অংকের অর্থবরাদ্দ না করলেও বাজেটের দিন রাতেই এই নিয়ে হস্তক্ষেপ করেন স্বয়ং মোদি। এরপরেই কলকাতার মেট্রো রেলের জন্য ১২০০ কোটি টাকা মঞ্জুর করা হয়। এর মধ্যে ৫২০ কোটি টাকা মঞ্জুর করা হয় নোয়াপাড়া থেকে বিমানবন্দর হয়ে বারাসত পর্যন্ত মেট্রো রেল প্রকল্পের জন্য। ৩৫০ কোটি টাকা করে বরাদ্দ করা হয় জোকা-বি বা দি বাগ ও নিউগড়িয়া-বিমানবন্দর প্রকল্পের জন্য। একই সঙ্গে মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষকে এটাও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে এবার থেকে কলকাতার প্রতিটি মেট্রো রেল প্রকল্পের কাজে নজর রাখবেন স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী। কোন প্রকল্পের কাজ কতটা এগিয়েছে সেই বিষয়টি দেখাভাল করবেন স্বয়ং মোদি। কাজ কোথায় কীরকম এগোচ্ছে সেটা দেখেই পরবর্তী অর্থবরাদ্দ করা হবে। উল্লেখ্য প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশেই এবারে রেলের জন্য বরাদকৃত অর্থ থেকেই ১২০০ কোটি টাকা মঞ্জুর করা হয়েছে কলকাতা মেট্রো রেলের জন্য।


সম্পাদক

মোঃ আবুল হাসান মোবাইল নাম্বার 01860003666

বার্তাকক্ষ

মোবাইল নাম্বার 09638870180