এই দিনে ভাইয়ারা রক্ত দিয়ে শহীদ হইছিলো, তাই আমরা রাতে ফুল দিতে আইছি

প্রকাশিত: ৫:১৫ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২১

মোঃ আলমগীর ঠাকুরগাঁও জেলা প্রতিনিধি। একুশের প্রথম প্রহরে শহীদদের প্রতি বিনম্র শ্রদ্ধা
মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের প্রথম প্রহরে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করে ভাষাশহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করে শিশুরা।

এর আগে ঠাকুরগাঁও ১ আসনের সাংসদ রমেশ চন্দ্র সেন এম পি। শনিবার দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিটে প্রথমে ঠাকুরগাঁও ১ আসনের সাংসদ রমেশ চন্দ্র সেন এম পি, শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন। এরপরই পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন জেলা প্রশাসক কে এম কামরুুজ্জামান সেলিম, পুলিশ সুপার জাহাাঙ্গীর
আলম, জেলা আওয়ামিলীগ সভাপতি সাদেক কুরাশী,দীপক কুমার,ঠাকুরগাঁও প্রেসক্লাব, অনলাইন প্রেসক্লাব,উপজেলা প্রশাসন, ঠাকুরগাঁও জাতীয় পার্টি, ঠাকুরগাঁও জেলা যুবলীগ,ছাত্রলীগ, সেচ্চাসেবক লীগ, সহ আওয়ামী অংগ সংগঠন।

এসময় ‘আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারী/ আমি কি ভুলিতে পারি’ গানের সুর বাজতে থাকে। পুষ্পস্তবক অর্পণের পর কিছুক্ষণ নীরবে দাঁড়িয়ে থেকে ভাষা আন্দোলনের শহীদদের স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা নিবেদন করেন।

এর পরপরই সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়,
এসময় তিন জন শিশুকে ফুল নিয়ে শহিদ মিনারে উঠতে দেখা যায়,তাদের জিজ্ঞেস করলে বলে যে এই দিনে ভাইয়ারা রক্ত দিয়ে শহীদ হইছিলো, তাই আমরা রাতে ফুল দিতে আইছি।
সাইরা (৩) নামের একজন বলে আমি আজকে ফুল দিবো তাই আমি গুমাইনি, খুব ঠান্ডা লাগছে, আমি আমার আম্মুর সাথে, আইছি, আর আমার আম্মু বলেছে এই দিনে ভাইয়ারা রক্ত দিয়ে বাংলা কথা নিয়া আইছে তাই আমি আর আপু ফুল দিতে আইছি।

ভাষা আন্দোলন দমন করতে ১৯৫২ সালের আজকের এই দিনে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তান সরকার ঢাকায় ১৪৪ ধারা জারি করে। ছাত্ররা ১৪৪ ধারা ভঙ্গ করে মিছিল করেন। সেই মিছিলে গুলি চলে। গুলিতে শহীদ হন সালাম, রফিক, বরকত, জব্বার। তাঁদের স্মরণেই দেশবাসী এই শহীদ মিনারের সামনে এসে বিনম্র শ্রদ্ধা জানায়। শ্রদ্ধা-ভালোবাসার ফুলে ছেয়ে যায় মিনারের বেদি।

একুশের প্রথম প্রহরে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় চার স্তরের কঠোর নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

ঠাকুরগাঁও কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। ঠাকুরগাঁও শহরের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার জন্য আরও পুলিশ সদস্য নিয়োজিত আছে। শনিবার সন্ধ্যা ছয়টা থেকে বেশ কিছু সড়কে ডাইভারশন দেওয়া হয়েছে।


সম্পাদক

মোঃ আবুল হাসান মোবাইল নাম্বার 01860003666

বার্তাকক্ষ

মোবাইল নাম্বার 09638870180