কানাইঘাটে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের উপর হামলা আহত ৩ গ্রেফতার ১।

প্রকাশিত: ১:৫৬ অপরাহ্ণ, মার্চ ৩, ২০২১

কানাইঘাট প্রতিনিধিঃ কানাইঘাট উপজেলা ৬নং সদর ইউপির বীরদল ছোটোফৌদ গ্রামের বাসিন্দা বীরমুক্তিযোদ্ধা ফখরুল ইসলামের সন্তান্দের উপর হামলা করেছে একদল সন্ত্রাসী।

এলাকা সুত্রে জানা,যায় বীরদল হাওর পশ্চিম বড় মাগুরী বীলের পার্শে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের দানকৃত সরকারের দেওয়া জায়গা দীর্ঘদিন থেকে মুক্তিযোদ্ধার দখল করে খেতে গেলে বড়দেশ নয়াগ্রামের মৃত শামসুল হোক গদার পুত্র জাকারিয়া এবং তারই আপন ভাই শরিফ উদ্দিন উভয়ই জোরপূর্বক ভাবে বীল দখল করে প্রতিবছর মুক্তিযোদ্ধাদের দখল করে ফায়দা লুটে আসছে এতে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান বাধা দিলে তাদের কে প্রানে মারার হুমকি সহ নানান প্রকার হয়রানি করে থাকে এক পর্যায়ে আজ দুপুর ১২টার দিকে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানরা তাদের বীল দেখতে গিয়ে দেখেন বড়দেশ নয়াগ্রামের বাসিন্দা মৃত শামসুল হক গদার ছেলে জাকারিয়া এবং তার ভাই শরিফ সহ দলবল নিয়ে বীলের সব মাছ মেরে নিয়ে যাইতেছে ঐসময় মুক্তিযোদ্ধার সন্তানরা তাদের বাধা দিলে এক পর্যায়ে জাকারিয়া এবং তার সাথে থাকা সবাই অস্ত্র বের করে এলোপাতাড়ি আঘাত করতে তাকে পরে এলাকা বাসী তাদের উদ্ধার করে কানাইঘাট হাসপাতালে প্রেরণ করে।

এতে করে মারাত্মক ভাবে আহত হয়েছেন বীরদল ছোটোফৌদ গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধার ফখরুল ইসলামের ছেলে মোহাম্মদ জাকারিয়া খালেদ(৪০)এবং ওহিদুল ইসলাম(২৬)ও মৃত শাহাবুদ্দীনের ছেলে মুক্তিযোদ্ধা ফখরুল ইসলামের নাতী আবু সামিয়ান তানিম (২২)
এ বিষয়ে কানাইঘাট থানার ৭জন কে অভিযুক্ত করে অজ্ঞাতনামা রেখে কানাইঘাট থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে এবং ইতিমধ্যে একজন কে গ্রেফতার করেছে কানাইঘাট থানা পুলিশ।

কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ তাজুল ইসলাম পিপিএম এর কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন আমাদের কাছে বীর মুক্তিযোদ্ধা ফখরুল ইসলাম ঘটনার পরেই থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন তারই প্রেক্ষিতে একজন কে গ্রেফতার আমরা করেছি এবং বাকি সবাইকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলতেছে এবং অভিযুক্ত জাকারিয়ার নামে থানায় দায়েরকৃত আগের মামলা ও রয়েছে আমরা সর্বোচ্চ চেষ্টা চালাচ্ছি আসামিদের গ্রেফতারের জন্য।


সম্পাদক

নির্বাহী সম্পাদকঃ মাসুদ রানা পলক প্রকাশক মোঃ আবুল হাসান মোবাইল নাম্বার 01860003666

বার্তাকক্ষ

মোবাইল নাম্বার 09638870180