সেই মোকবুলের দায়িত্ব নিলেন ইউএনও

প্রকাশিত: ৩:৪২ অপরাহ্ণ, মার্চ ৩, ২০২১

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি সংবাদ প্রকাশের পর ৭৫ বয়সী মোকবুলের বয়স্ক ভাতার কার্ড দেওয়ার দায়িত্ব নিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও)। একইসঙ্গে তিনি মোকমুলকে ভূমিহীনের জন্যে বরাদ্দকৃত সরকারি বাড়ি দেওয়ারও অঙ্গীকার করেন।

মঙ্গলবার (২ মার্চ) দুপুরে ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ( ইউএনও) আব্দুল্লাহ আল মামুন বৃদ্ধ মোকবুলকে নিজ কার্যালয়ে ডেকে নেন। প্রয়োজনীয় কাগজ বুঝে নিয়ে বয়স্ক ভাতার কার্ড ও সরকারি বাড়ি দেওয়ার কথা বলেন।

জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী মোকবুলের জন্ম তারিখ ১৯৪৫ সালের ৬ মে। সরকারি নিয়ম অনুযায়ী, বয়স্ক ভাতা পাওয়ার ক্ষেত্রে নারীর বয়স সর্বনিম্ন ৬২, আর পুরুষের বয়স সর্বনিম্ন ৬৫ বছর। সে অনুযায়ী মোকবুল হোসেন বয়স্ক ভাতা পাওয়ার যোগ্য হলেও এত দিনেও কেউ তার সহযোগিতায় এগিয়ে আসেনি।

বৃদ্ধ ফেরিওয়ালা মোকবুল হোসেন বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে আমি একটি বয়স্ক ভাতা কার্ডের জন্যে ঘুরেছি। কোনও লাভ হয়নি। সবাই তাড়িয়ে দিয়েছে। তবে এবার বয়স্ক ভাতার কার্ডের সঙ্গে বাড়িও পেতে যাচ্ছি। আমি অনেক খুশি।’

ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন,‘বয়স্কভাতা কার্ড পেতে আর কত অপেক্ষা করতে হবে এমন সংবাদ প্রকাশের পর মোকবুল হোসেনের বিষয়ে জানতে পারি। সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা গ্রহণ করি। ইতোমধ্যে আমরা তদন্ত শেষ করেছি। তিনি একজন ভূমিহীন এবং বয়স্ক ভাতা পাওয়ার দাবিদার। তাই তাকে বয়স্ক ভাতা কার্ড ও ভূমিহীন প্রকল্পে গৃহ দেওয়ার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করেছি।’

প্রসঙ্গত,‘বয়স্কভাতা কার্ড পেতে আর কত অপেক্ষা করতে হবে’ এই শিরোনামে গত ১৮ ফেব্রুয়ারি বিভিন্ন গণমাধ্যমে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। সংবাদটি জেলা প্রশাসনের নজরে এলে তারা তদন্তে নামে।


সম্পাদক

নির্বাহী সম্পাদকঃ মাসুদ রানা পলক প্রকাশক মোঃ আবুল হাসান মোবাইল নাম্বার 01860003666

বার্তাকক্ষ

মোবাইল নাম্বার 09638870180