দাকোপ উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত: ৬:৪৯ অপরাহ্ণ, মার্চ ৬, ২০২১

স্বপন কুুুমার রায় খুলনা ব্যুরো প্রধান
খুলনার দাকোপ উপজেলা আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে লাউডোব ইউনিয়নে দলীয় প্রার্থী যাচাই-বাছাই নিয়ে মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংবাদ সম্মেলনের প্রতিবাদ জানিয়েছেন লাউডোব ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দ। শুক্রবার খুলনা প্রেসক্লাবে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ প্রতিবাদ জানান।

সংবাদ সম্মেলনের লিখিত বক্তব্যে দাকোপের লাউডোব ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি তপন রায় বলেন, নির্বাচন কমিশনের ঘোষনা অনুযায়ী আগামী ১১এপ্রিল দাকোপের সবগুলো ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনকে সামনে রেখে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের দূর্গ খ্যাত দাকোপের প্রতিটি ইউনিয়নে কেন্দ্রীয় নির্দেশনা অনুযায়ী উপজেলা আওয়ামীলীগ যখন দলীয় প্রার্থী বাছাইয়ের কাজ চুড়ান্ত করছে।

এ সময়ে বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সাথে বারবার বিশ্বাস ঘাতকতা ও বিএনপি-জামায়াতের সাথে আতাত করার কারনে দল থেকে বিচ্ছিন্ন কিছু ব্যাক্তি গত বৃহস্পতিবার(৪ মার্চ) মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও বানোয়াট তথ্য দিয়ে সংবাদ সম্মেলন করে দলের ভাব মূর্তি নষ্ট করার চেষ্টা করেছে।তিনি বলেন, ১ম ধাপের নির্বাচনে দাকোপের ০৯টি ইউনিয়নে নির্বাচন অনুষ্টিত হওয়ার ঘোষনায় আগ্রহী প্রার্থীদের প্যানেল তৈরীর জন্য ২৭ ফেব্রুয়ারী দাকোপ উপজেলা আওয়ামীলীগের কর্যকরী কমিটির সভায় সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী লাউডোব ইউনিয়নসহ সকল ইউনিয়নের প্রার্থী বাছাইয়ের তারিখ নির্ধারণ হয়।

গত বুধবার(৩মার্চ) লাউডোব ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কার্যকরী কমিটির সভায় উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দের উপস্থিতিতে, ইউনিয়ন কার্যকারী কমিটির সদস্যবৃন্দ, ওয়ার্ড আ’লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকগণ সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। সভায় উপজেলা আ’লীগের অন্যতম সহ-সভাপতি বর্তমান চেয়ারম্যান সরোজিত কুমার রায়, ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি তপন রায় এবং সহ-সভাপতি গাজী জামীর হোসেনের নাম প্রস্তাবনা পান।পরে সভায় উপস্থিত নেতৃবৃন্দ অত্যন্ত স্বচ্ছতার সাথে তিনজন প্রার্থীর একটি প্যানেল দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে মনোনয়ন দেয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন।

প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হসিনার নেতৃত্বের প্রতি আস্থাশীল থেকে বর্তমান দাকোপ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের নেতৃত্বে যখন সকল দলীয় কার্যক্রম সফলতার সাথে বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে সে সময় দাকোপ উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক শেখ যুবরাজের কুপরামর্শে লাউডোব ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক নিহার মন্ডল মিথ্যা অপপ্রচারকরে দলীয় নেতাকর্মীদের বিভ্রান্ত করার ষড়যন্ত্রে লিপ্ত।

সংবাদ সম্মেলনে আরও বলা হয়, শেখ যুবরাজ ও নিহার মন্ডলগং বিগত ২০১৪ সালের জাতীয় নির্বাচনে স্বতস্ত্র প্রার্থী ননী গোপাল মন্ডলের অনুসারী। তারা দুইজন দীর্ঘদিন যাবৎ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভায় অংশ গ্রহন করেন না। দলের কোন নির্দেশনা মানেন না এবং বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সকল পর্যায়ের নির্বাচনে দলের বিরুদ্ধে অবস্থান করে দলীয় মনোনীত প্রার্থীকে পরাজিত করার জন্য বিভিন্ন সভায় দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দের বিরুদ্ধে অশালীন ভাষায় বক্তব্য দিয়ে দলীয় ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন, দলীয় নেতাকর্মী ও জনগনকে বিভ্রান্ত করার অপচেষ্টায় লিপ্ত আছে।

তারা বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের প্রর্থীর বিপক্ষে দাকোপ উপজেলা (১৪) নং তালিকা ভুক্ত রাজাকার স্বতন্ত্র প্রার্থী মুনসুর আলী খাঁনের চিংড়ি মাছ প্রতীকের পক্ষে এবং সদ্য সমাপ্ত চালনা পৌরসভা নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের বিপক্ষে স্বতন্ত্র প্রার্থীর জগ প্রতীকের পক্ষে নির্বাচন করেছেন।এসব কারনে সম্প্রতি দাকোপ উপজেলা আওয়ামীলীগ ও চালনা পৌরসভা আওয়ামীলীগের কার্যকারী কমিটির সভায় তাদের বিরুদ্ধে দলীয় শৃংখলা ভঙ্গ করায় সাংগঠনিক ব্যাবস্থা গ্রহনের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত বংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় ও খুলনা জেলা কমিটির নিকট প্রেরণ করেছেন।

একইভাবে তারা দলের ভাব মূর্তি ক্ষুন্ন করার জন্য মিথ্যা ভিত্তিহীন বানোয়াট অভিযোগ এনে গত বৃহস্পতিবার (৪মার্চ) সংবাদ সম্মেলন করেছে। প্রার্থী বাছাইয়ে ডাকা গত ৩মার্চ লাউডোব ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের বর্ধিত সভায় তারা অনুপস্থিত ছিলেন।নিজেদের অপকর্ম আড়াল করতে তারা এই সংবাদ সম্মেলনে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শেখ আবুল হোসেনের বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগে ব্যক্তি আক্রমন এবং সভাপতি-সম্পাদকের ভাবমূর্তি নষ্টের অপচেষ্টা চালাচ্ছেন। প্রার্থী বাছাইয়ে দাকোপ উপজেলা আওয়ামীলীগ চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত গ্রহন করার আগেই অর্থ বানিজ্যের ভিত্তিহীন অভিযোগ সম্পূর্ণ বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রনোদিত। তাই দুই কুচক্রী নেতার সকল চক্রান্ত উপেক্ষা করে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বের প্রতি অবিচল আস্থা রেখে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী সভা এবং প্রার্থী বাছাই করা হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

এছাড়াও দাকোপ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি শেখ আবুল হোসেনের পিতা আরশাদ আলী শেখকে ৫৮নং তালিকাভুক্ত রাজাকার হিসাবে আখ্যায়িত করে ভুল তথ্য উত্থাপন করা হয়েছে তা সম্পুর্ন মিথ্যা ও বানোয়াট। দাকোপ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়াম্যান জনপ্রিয় নেতা শেখ আবুল হোসেনের রাজনৈতিক, সামাজিক, ও ব্যাক্তিগত মানসম্মান ক্ষুন্ন ও তাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য এহেন বানোয়াট সংবাদ পরিবেশন করায় মিথ্যা অভিযোগের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন দাকোপ উপজেলা আ’লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক আব্দুল কাদের, উপজেলা আ’লীগের সহ-সভাপতি সরোজিত কুমার রায়, লাউডোব ইউনিয়ন আ’লীগ সগ-সভাপতি গাজী জামির হোসেন, রঞ্জন কুমার রায়, ইউনিয়ন আ’লীগ নেতা মধুসূদন সরদার, সুকুমার ম-ল, নুর ইসলাম শেখ, ওয়ার্ড আ’লীগ নেতা সন্তোষ কবিরাজ, পরিমল সরদার, বিধান সরদার প্রমূখ।


সম্পাদক

নির্বাহী সম্পাদকঃ মাসুদ রানা পলক প্রকাশক মোঃ আবুল হাসান মোবাইল নাম্বার 01860003666

বার্তাকক্ষ

মোবাইল নাম্বার 09638870180