গোবিন্দগঞ্জে পুলিশের গুলিতে নিহত কৃষক টুকুর কবর জিয়ারত করলেন কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ

প্রকাশিত: ১২:২৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৩, ২০২১

ডেস্ক গোবিন্দগঞ্জে পুলিশের গুলিতে নিহত কৃষক টুকুর কবর জিয়ারত করলেন কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ
৪ দলীয় জোট সরকারের আমলে গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জের মহিমাগঞ্জে ন্যায্যমূল্যে সার কিনতে এসে পুলিশের গুলিতে নিহত কৃষক টুকু সেখের কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ করে শ্রদ্ধা জানায় কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ।

শুক্রবার বিকেলে উপজেলার মহিমাগঞ্জ ইউনিয়নের জিরাই গ্রামে নিহত টুকুর বাড়িতে গিয়ে তার কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণ শেষে কবর জিয়ারত করা হয়।

এরপর টুকুর বাড়ির উঠানে টুকুর পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে এক সভায় বক্তব্য রাখেন কৃষকলীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কৃষিবিদ বিশ্বনাথ সরকার বিটু, কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য খন্দকার জাহাঙ্গীর আলম ও আরমানুল হক পার্থ, গাইবান্ধা জেলা কৃষকলীগের সভাপতি হাসান মাহমুদ সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক দীপক কুমার পাল, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান মুকু, মহিমাগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আনোয়ারুল ইসলাম প্রধান,সহসভাপতি শাহ আলম সরকার, যুগ্ম সম্পাদক খুরশিদ আলম পলাশ, সাংগঠনিক সম্পাদক আতিকুর রহমান আতিক,পৌর কৃষকলীগ নেতা মিজানুর রহমান মিজান ও মকবুল হোসেন, ইউনিয়ন যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম আহবায়ক শফিউল আলম হিরু, ছাত্রলীগ নেতা অভি প্রধান ও ফিরোজ মন্ডল প্রমূখ। এসময় কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ নিহত টুকুর কবরের সীমানা প্রাচীর নির্মাণ ও বাড়ি-ঘর সংস্কারসহ পরিবারের সদস্যদের আর্থিক সহায়তার আশ্বাস প্রদান করেন।

উল্লেখ্য,৪ দলীয় জোট সরকারের সময় ১৯৯৫ সালের ২১ মার্চ মহিমাগঞ্জ বন্দরে ন্যায্য মূল্যে সার কিনতে এসে জিরাই গ্রামের মৃত নয়া মিয়া সেখের ছেলে কৃষক টুকু পুলিশের গুলিতে নিহত হয়।


সম্পাদক

নির্বাহী সম্পাদকঃ মাসুদ রানা পলক প্রকাশক মোঃ আবুল হাসান মোবাইল নাম্বার 01860003666

বার্তাকক্ষ

মোবাইল নাম্বার 09638870180