ছাত্রকে মাদরাসা শিক্ষকের বলাৎকার, এর আগেও তিন শিশুর সর্বনাশ করেন

প্রকাশিত: ১:৪৬ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৩, ২০২১
প্রতীকী ছবি

ডেস্ক দিনাজপুর সদর উপজেলায় ১৩ বছর বয়সী এক মাদরাসা ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে শিক্ষক রবিউছ সানীকে (২৫) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

দিনাজপুর শহরের পুলহাটে অবস্থিত কাশিমপুর হাফেজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানা থেকে গতকাল শুক্রবার রাত সাড়ে ১০টায় ওই অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক করে পুলিশ। গত ৫ মার্চ রাতে ওই মাদরাসায় ১৩ বছর বয়সী এক শিশু ছাত্রকে বলাৎকারের ঘটনা ঘটে।

আটক শিক্ষক রবিউছ সানী জেলার চিরিরবন্দর উপজেলার গলাহার গ্রামের আমজাদ হোসেনের ছেলে।

আজ শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় দিনাজপুর কোতয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোজাফ্ফর হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, শুক্রবার রাতে বলাৎকারের শিকার শিশুর পিতা সদর উপজেলার যোগীবাড়ী গ্রামের বাসিন্দা বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয়, গত ৫ মার্চ দিবাগত রাতে মাদরাসায় ওই শিক্ষক তার ১৩ বছরের শিশু ছেলে আহাদ মাহমুদ তুষারকে বলাৎকার করেন। এ ঘটনা বাইরের কাউকে না জানানোর জন্য ভয়ভীতি দেখান। গত ১১ মার্চ মাদ্রাসা থেকে ছুটি নিয়ে বাসায় এসে বিষয়টি পরিবারের লোকজনদের জানায়।

ওসি আরো জানান, অভিযুক্ত শিক্ষকের বিরুদ্ধে ইতিপূর্বে আরো ৩ জন ছাত্রকে বলৎকারের অভিযোগ রয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় শিশুটির বাবা মাহাফুজ হোসেন উজ্জল মাদরাসায় গিয়ে কমিটির লোকদের বিষয়টি জানান। এসময় উত্তেজিত জনতা অভিযুক্ত শিক্ষককে মারধর করে। পরে কোতয়ালী থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেপ্তার করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

আজ শনিবার দুপুরে আটক শিক্ষক রবিউছ সানীকে আদালতে সোপর্দ করা হবে বলে তিনি জানান।


সম্পাদক

নির্বাহী সম্পাদকঃ মাসুদ রানা পলক প্রকাশক মোঃ আবুল হাসান মোবাইল নাম্বার 01860003666

বার্তাকক্ষ

মোবাইল নাম্বার 09638870180