অভাবের তাড়নায় বিক্রি করে দেয়া সন্তান দুই মাস পর ফিরল মায়ের কোলে

প্রকাশিত: ১:১৪ অপরাহ্ণ, মার্চ ১৯, ২০২১

ডেস্ক অভাবের তাড়নায় এক বছর বয়সী কন্যা ফাতেমাকে বিক্রি করে দেন টাঙ্গাইলের ঘাটাইল উপজেলার বাবু মল্লিক। সে ঘটনার দুই মাস পর মেয়েটিকে ফিরে পেয়েছেন মা রাজিয়া খাতুন। সোমবার রাতে টাঙ্গাইল পৌর এলাকা থেকে পুলিশ ও বেসরকারি সংস্থা ব্র্যাকের সহযোগিতায় শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়।

ব্র্যাক বেলকুচি শাখার মানবাধিকার ও আইন সহায়তা কর্মসূচির এইচআরএলএস অফিসার চন্দনা খাতুন বলেন, সোমবার রাতেই শিশুটিকে উদ্ধার করে তার বাবা-মায়ের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

তিনি বলেন, দুই মাস আগে ব্র্যাক আইন সহায়তা অফিসে গিয়ে বাবু মল্লিকের বিরুদ্ধে শিশু কন্যাকে বিক্রি করে দেয়ার অভিযোগ করেন তার স্ত্রী রাজিয়া খাতুন। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে পুলিশের সহায়তায় চলতে থাকে শিশুটির খোঁজ।

মেয়েকে ফিরে পাওয়ায় পুলিশ ও ব্র্যাককে ধন্যবাদ জানান শিশু ফাতেমার মা রাজিয়া খাতুন।

শিশুটির বাবা বাবু মল্লিক বলেন, অভাবের সংসারে কোনো কূল-কিনারা পাচ্ছিলাম না। এসবের মধ্যেই দুধের শিশুটিকে ফেলে তার মা বাপের বাড়িতে চলে যায়। ছোট বাচ্চাটির মায়ের অভাব পূরণ করতেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

চৌহালী থানার ওসি রফিকুল ইসলাম জানান, বাবু মল্লিক একাধিক বিয়ে করেছেন। স্ত্রী-সন্তানদের ভরণ-পোষণ করতে পারেন না। সংসারের অভাব-অনটন নিয়ে স্ত্রী রাজিয়ার সঙ্গে প্রায়ই ঝগড়া হতো। এক পর্যায়ে শিশুকন্যা ফাতেমাকে রেখে স্ত্রী রাজিয়াকে বাড়ি থেকে তাড়িয়ে দেন। এরপর শিশুটিকে পাবনার কাশিনাথপুর এলাকার এক নিঃসন্তান দম্পতির কাছে বিক্রি করে দেন বাবু মল্লিক ও তার বাবা আমজাদ হোসেন। ওই দম্পতি শিশুটিকে নিজেদের সন্তানের মতোই লালন-পালন করছিলেন। ওই অবস্থায় মা রাজিয়া খাতুনের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে টাঙ্গাইল শহর থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়েছে।


সম্পাদক

নির্বাহী সম্পাদকঃ মাসুদ রানা পলক প্রকাশক মোঃ আবুল হাসান মোবাইল নাম্বার 01860003666

বার্তাকক্ষ

মোবাইল নাম্বার 09638870180