স্বাস্থ্যবিধির বালাই নেই কাঁচাবাজারে

প্রকাশিত: ১১:৩৪ পূর্বাহ্ণ, এপ্রিল ৬, ২০২১

ডেস্ক লকডাউনের দ্বিতীয় দিনেও সরকারি নির্দেশনা মানা হচ্ছে না রাজধানীর কোনো কাঁচাবাজারে। মানা হচ্ছে না স্বাস্থ্যবিধিও। ক্রেতা বিক্রেতা কারো মুখেই নেই মাস্ক। উপেক্ষিত হচ্ছে সামাজিক দূরত্ব।

নির্দেশনা অনুযায়ী খোলা জায়গায় কাঁচাবাজার সরিয়ে নেয়ার কথা থাকলেও তা মানছেন না ব্যবসায়ীরা। কেউ কেউ আবার বলছেন, স্থান সংকটের কারণে দোকান সরানো যাচ্ছে না।

রাজধানীর পুরান ঢাকার কাঁচাবাজারগুলোতে এখনো গাদাগাদি করে বেচা কেনা করতে দেখা গেছে। এতে নিরাপদ শারীরিক দূরত্ব বজায় থাকছে না। পাশাপাশি বেশিরভাগ ক্রেতা ও বিক্রেতাকে মাস্ক ছাড়াই বেচা কেনা করতে দেখা গেছে। অনেকের মাস্ক থাকলেও ব্যবহারে উদাসীন।

বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, মূল সড়কের পাশের বিপণিবিতানগুলো বন্ধ থাকলেও অলিগলিতে থাকা দোকানপাট প্রায় সবই খোলা।

এদিকে, লকডাউনের কারণে বাজারে বেড়েছে বিভিন্ন পণ্যের দাম। বাজারগুলো ঘুরে দেখা গেছে, তিনদিন আগের ১৮ থেকে ২০ টাকায় যে আলু বিক্রি হতো এখন সেই আলু প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ২৩ থেকে ২৫ টাকা দরে। ৩৫ টাকার পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪০ থেকে ৪৫ টাকায়, ৬০ টাকা কেজির আদা বিক্রি হচ্ছে ১০০ থেকে ১১০ টাকা দরে। একই সঙ্গে দাম বেড়েছে সব ধরনের চালের। বিক্রেতারা প্রতিকেজি চালে ২ থেকে ৩ টাকা বেশি নিচ্ছেন। পাশাপাশি বেড়েছে ডিমের দাম। গত সপ্তাহে প্রতি হালি ডিম ২৮ থেকে ৩০ টাকায় বিক্রি হলেও এখন বিক্রি হচ্ছে ৩২ থেকে ৩৫ টাকা হালি।

বিধিনিষেধ বাস্তবায়নে মাঠপর্যায়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তৎপরতাও খুব একটা দেখা যাচ্ছে না।

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে শুধু প্রজ্ঞাপন জারি করলেই চলবে না। স্বাস্থ্যবিধি মানার বিষয়টি নিশ্চিত করতে প্রশাসনের নজরদারি বাড়াতে হবে। দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া না হলে দেশে করোনা আরো ভয়াবহ রূপ নিতে পারে।


সম্পাদক

নির্বাহী সম্পাদকঃ মাসুদ রানা পলক প্রকাশক মোঃ আবুল হাসান মোবাইল নাম্বার 01860003666

বার্তাকক্ষ

মোবাইল নাম্বার 09638870180